আইন ভঙ্গ করে 'দেবী' প্রদর্শনের প্রতিবাদে মানববন্ধন মঙ্গলবার

আইন ভঙ্গ করে চলচ্চিত্র ‘দেবী’ প্রদর্শনের প্রতিবাদে তামাকবিরোধী মানববন্ধন মঙ্গলবার

0

ব্যাপকভাবে ধূমপানের দৃশ্য ব্যবহারের কারণে সম্প্রতি মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলা চলচ্চিত্র দেবী এরই মধ্যে দেশের তামাকবিরোধী এবং জনস্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে গভীর উদ্বেগের জন্ম দিয়েছে। আইন অনুযায়ী ধূমপানের দৃশ্য প্রদর্শন নিষিদ্ধ হলেও, সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত এই চলচ্চিত্রে প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে বারবার আনা হয়েছে ধূমপানের দৃশ্য। ব্যবহার করা হয়েছে নিজস্ব মনগড়া সতর্কবাণী। এর আগে চলতি বছরের এপ্রিল মাসে দেবী সিনেমার যে ফার্স্টলুক পোস্টার প্রকাশিত হয়, তাতেও তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন লঙ্ঘন করে ধূমপানের বিতর্কিত ছবি ব্যবহার করা হয়। তামাকবিরোধী সংগঠনগুলোর প্রতিবাদের মুখে সেটি পরিবর্তন করা হয়েছিল। অথচ মূল সিনেমা মুক্তি দেয়ার ক্ষেত্রেও তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের প্রতি ঠিক একই অবহেলা প্রদর্শন করেছেন সংশ্লিষ্টরা।ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫-এর ৫(ঙ) ধারায় বাংলাদেশে প্রস্তুতকৃত বা লভ্য ও প্রচারিত সিনেমা, নাটক এবং প্রামাণ্যচিত্রে ধূমপান ও অন্যান্য তামাকজাত পণ্য ব্যবহারকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। তবে কাহিনীর প্রয়োজনে এমন কোন দৃশ্য অন্তর্ভূক্ত করা হলে, সেক্ষেত্রে তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিরুৎসাহিতকরণে ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) বিধিমালা, ২০১৫ দ্বারা নির্ধারিত পদ্ধতিতে সতর্কীকরণ বার্তা জুড়ে দেয়ার সুস্পষ্ট নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। একইসাথে চলচ্চিত্র প্রদর্শনকালেও বিধি দ্বারা নির্ধারিত পদ্ধতি অনুসরণের নির্দেশনা রয়েছে। গত ১৯ অক্টোবর ২০১৮ থেকে বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে দেবী প্রদর্শন শুরু হলেও আইনের এই সুস্পষ্ট নির্দেশনাগুলো মানা হচ্ছেনা। সিনেমা, টেলিভিশন এবং অন্যান্য গণমাধ্যম ব্যবহার করে পরোক্ষভাবে ধূমপান ও অন্যান্য তামাকপণ্য ব্যবহারের অভ্যাসকে উৎসাহিত করার নজির বিশ্বে কম নয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সিগারেটকে পৌরুষ, গ্ল্যামার, তীক্ষ্ণ বুদ্ধি ইত্যাদি কাঙ্ক্ষিত গুণাবলীর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট হিসেবে দেখানো হয়। এমতাবস্থায়, দেবী চলচ্চিত্রটি আইন মেনে প্রদর্শন করার পাশাপাশি ভবিষ্যতে সিনেমা, নাটক ও প্রামাণ্যচিত্রে ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহারের দৃশ্য বর্জনের দাবিতে একটি মানববন্ধন কর্মসূচি আয়োজন করা হয়েছে। ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন, এসিডি, ইপসা, ব্যুরো অব ইকনোমিক রিসার্চ, ডব্লিউবিবি ট্রাস্ট, নাটাব, প্রত্যাশা, টিসিআরসি, তাবিনাজ, সুপ্র, বিটা, গ্রাম বাংলা উন্নয়ন কমিটি, বিসিসিপি, এইড ফাউন্ডেশন, প্রজ্ঞাসহ বিভিন্ন তামাকবিরোধী সংগঠন সম্মিলিতভাবে ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাব এর সামনে এই মানববন্ধন কর্মসূচিটি আয়োজন করেছে।
তামাকবিরোধী সংগঠনসমূহের পক্ষে – এবিএম জুবায়ের, নির্বাহী পরিচালক, প্রজ্ঞা।

Share.
Loading...

Comments are closed.