নির্বাচনকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই -পীর সাহেব চরমোনাই

নির্বাচনকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন হতে হবে -পীর সাহেব চরমোনাই

0

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, নির্বাচনের সময় যত ঘনিয়ে আসছে জনমনে সঙ্কা ও প্রশ্ন দানা বাধছে আদৌ নির্বাচন হবে কিনা।
বিরোধী দলগুলোর দাবি নির্বাচনকালীন সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। তিনি বলেন, প্রধান দুইটি রাজনৈতিক জোট নির্বাচনকে সামনে রেখে মুখোমুখি অবস্থানে দেশে এক ভীতিকর পরিস্থিতি তৈরি করেছে। জাতি এ প্রতিহিংসা, জিঘাংসা ও ধ্বংসের রাজনীতির অবসান চায়। প্রতিহিংসার রাজনীতির কারণে মানুষ ক্রমেই বড় দুই দল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে। একটি অবাধ সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষণার পূর্বেই বর্তমান সংসদ ভেঙ্গে দিতে হবে। পীর সাহেব বলেন, নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন এবং বিচারিক ক্ষমতা দিতে হবে।
আজ বৃহস্পতিবার বেলা ২টায় সেনবাগ সরকারি পাইলট হাইস্কুল মাঠে “অবাধ, সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের মাধ্যমে সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার দাাবতে” ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সেনবাগ উপজেলা শাখার উদ্যোগে আয়োজিত বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। শাখা সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল ওদুদের সভাপতিত্বে এবং কামরুল হাসানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত জনসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, দলের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, যুব আন্দোলনের সেক্রেটারী জেনারেল মাওলানা নেছার উদ্দিন, ছাত্র আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় সভাপতি শেখ ফজলুল করীম মারূফ, জেলা সভাপতি হাফেজ মাওলানা নজির আহমদ। প্রধান বক্তা ছিলেন নোয়াখালী-২ আসনের প্রার্থী মাওলানা মুহাম্মদ খলিলুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুবনেতা রেজওয়ানুল বারী, ছাত্রনেতা আব্দুল ওয়াহ্হাব, মুফতী নুরুল ইসলাম, আবু বকর, মোঃ ইয়াসিন, দিদারুল আলম, গোলাম সারোয়ার, মুহা. একরাম, আব্দুল মুহিত টুটুল, আবু ছালেহ জুয়েল প্রমুখ।
পীর সাহেব চরমোনাই আরো বলেন, সন্ত্রাস, দূর্নীতি আজ সমাজের রন্দ্রে রন্দ্রে ছড়িয়ে পড়েছে। দেশের সম্পদ লুটের মহোৎসব চলছে। কিন্তু দেশের সম্পদ লুটকারীরা কখনো দেশ প্রেমিক হতে পারে না। তিনি দূর্নীতি, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় হাতপাখা প্রতিকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানান। তিনি নির্বাচনে দুর্নীতিবাজ ও সন্ত্রাসীদের অযোগ্য ঘোষণার দাবি জানান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মাওলানা গাজী আতাউর রহমান বলেন, আমরা দেশকে উন্নতি ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে বাংলাদেশকে একটি কল্যাণ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চাই। ইসলামের প্রতি জনগণের এই উৎসাহ উদ্দীপনা দেখে আল্লাহর রহমতে আমরা দৃঢ়ভাবে বলতে পারি বাংলাদেশের আগামী ভবিষ্যত ইসলামের। বাংলাদেশের ইসলামের এই অগ্রযাত্রাকে কেউ ঠেকাতে পারবে না।
ক্যাপশন : নোয়াখালীর সেনবাগ সরকারি পাইলট হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত ইসলামী আন্দোলনের বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছেন দলের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই। – প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

Share.
Loading...

Comments are closed.