Sunday , December 8 2019
Home / বাংলা বিভাগ / মতামত / বিজেপি সরকার কাশ্মীরীদের অধিকার কেড়ে নিচ্ছেঃ আইএবি
ad
বিজেপি সরকার কাশ্মীরীদের অধিকার কেড়ে নিচ্ছেঃ আইএবি
Islami Andolan Bangladesh Logo

বিজেপি সরকার কাশ্মীরীদের অধিকার কেড়ে নিচ্ছেঃ আইএবি

০৯ আগষ্ট ২০১৯, শুক্রবার – কাশ্মীরে ভারতীয় আগ্রাসনের প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, গাজীপুর মহানগর শাখা আয়োজিত সমাবেশে ও বিক্ষোভ মিছিলে নগর সভাপতি, আলহাজ্ব মোঃ ফাইজ উদ্দিন বলেন ,কাশ্মীর ৩৭০ ধারা এবং তার অধীনে ৩৫ ধারা অনুযায়ী তারা স্বতন্ত্র এক দেশ থাকবে। শুধু প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, মাত্র তিনটা জিনিস কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে থাকবে। নেহেরু সাহেব এ সংবিধান ভারতে করেছিলেন।কাশ্মীরের জনগণ ব্যবসা, সরকারি চাকরি সব সুবিধা ভোগ করবে এবং তারা সেখানে স্বাধীন থাকবে। ওই এলাকায় বহিরাগত কোনো দেশের লোক ভারত হোক বা অন্য কোনো দেশের লোক হোক, তারা জমি ক্রয় করতে পারবে না।
তিনি বলেন, মোদি সরকার সেই ৩৭০ ধারা পরিবর্তন করেছে অবৈধভাবে। ভারতের সংবিধানের ২ ও ৩ ধারার মধ্যে কোনো প্রদেশকে অধীনে আনতে গেলে শর্ত আছে সেই শর্ত মোদি সরকার মানেনি। প্রেসিডেন্ট অর্ডিন্যান্স জারি থাকে সেই প্রদেশের সংসদের অনুমতির প্রয়োজন। কিন্তু মোদি সরকার কাশ্মীরের সংসদের অনুমতি গ্রহণ করেনি।
নগর সেক্রেটারি, মুফতি হুসাইন আহমদ বলেন,ভারতের সংবিধানের দিকে লক্ষ্য না রেখে কাশ্মীরে মোদি সরকার আগ্রাসন চালাচ্ছে, দখলের ষড়যন্ত্র করছে। আমাদের ভয় হয়, তার এই ষড়যন্ত্রের চক্ষু বাংলাদেশে পড়তে পারে। তিনি বলেন, আমি মোদি সরকারকে বলব আপনার এই নীতির বিরুদ্ধে ভারতের সব রাজনৈতিক দল সোচ্চার হয়েছে। তারা বক্তব্য দিচ্ছে মোদি সরকার গণতন্ত্রকে জবাই দিয়েছে। ভারতের রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলেছেন, মোদি সরকার ভারতের সংবিধানের মাথা কেটে নিয়েছে। আমরা ভারতবিরোধী নই, ভারতের আগ্রাসনের বিরোধী। আমরা ভারতবিরোধী নই, ভারতের নীতিবিরোধী। যেখানে ভারতের রাজনৈতিক নেতারা বলেছেন কাশ্মীরের বিষয়ে সরকারের এ সিদ্ধান্ত ভারতকে টুকরো টুকরো করার সিদ্ধান্ত। তিনি বলেন, আমি সব নাগরিককে বলব, এ সমস্যা শুধু কাশ্মীরের নয় এটা বাংলাদেশেরও। এর প্রতিবাদে যদি আপনারা না দাঁড়ান তাহলে ভবিষ্যতে আমাদের ক্ষতি হবে। কোনো অবস্থায়ই মোদি সরকারকে কাশ্মীর দখল করতে দেয়া হবে না বলেও হুঁশিয়রি উচ্চারণ করেন তিনি। যদি আন্দোলন করতে গিয়ে আমাদের জীবন দেয়ার প্রয়োজন হয় জীবন দেব।পীর সাহেব চরমোনাই ঘোষিত জেলায় জেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। সমাবেশের শেষে বিশাল এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয় জয়দেবপুর বাসস্ট্যান্ড হয়ে শিববাড়ি মোড়ে সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন , ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ গাজীপুর মহানগর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক, মাও.আবু জাফর সালেহ মিয়াজী, নগর যুব আন্দোলন সহ সভাপতি এইচ এম সাইদুর রহমান, নগর শ্রমিক আন্দোলন সভাপতি ইকবাল হোসেন হাওলাদার, নগর ছাত্র আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিম চৌধুরীসহ নগর ও থানা শাখার নেতৃবৃন্দ।
বার্তা প্রেরক – এইচ.এম সাইদুর রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ,গাজীপুর মহানগর।

adadad