Friday , May 29 2020
Home / Bangladesh / গার্মেন্টস কারখানা খুলে দেশে নতুন বিপর্যয় সৃষ্টি করা হলো: আইএবি
ad
গার্মেন্টস কারখানা খুলে দেশে নতুন বিপর্যয় সৃষ্টি করা হলো: আইএবি
IAB kadamtoli

গার্মেন্টস কারখানা খুলে দেশে নতুন বিপর্যয় সৃষ্টি করা হলো: আইএবি

করোনা ভাইরাসের ব্যাপক বিস্তৃৃতির মধ্যেই গার্মেন্টস শিল্প কারখানাসমূহ খুলে দেয়ায় গভীর উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী। তিনি বলেন, প্রতিদিন নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে মানুষ। এর মধ্যে গার্মেন্টস খুলে দিয়ে নতুন করে বিপর্যয় ডেকে আনা হচ্ছে বলে জনগণ মনে করে।তিনি বলেন, গার্মেন্টস কর্মীরা চাকুরি বাঁচানোর স্বার্থে কর্মস্থলে ফিরে আসতে বাধ্য হচ্ছে। গার্মেন্টস শ্রমিকসহ সকল শ্রমিমের বেতন-ভাতা সময়মত পরিশোধ করতে হবে এবং চাকুরি বহাল রাখতে হবে। প্রয়োজনে সরকারকে ভর্তুকি দিয়ে হলেও শ্রমিকদের বাচাতে হবে। সারা বিশ্ব যখন কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশনকে ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে নিরাপদ থাকার উপায় বলে মনে করছে, সেখানে বাংলাদেশে গার্মেন্টস কারখানা খুলে দিয়ে গোটা জাতিকে হুমকির মাঝে ফেলার ব্যবস্থা করা হচ্ছে কি না জনগণ তা জানতে যায়? তিনি বলেন,
যেখানে সরকারি ছুটি বর্ধিত করা হয়েছে। সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার লক্ষ্যে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করছে। গার্মেন্টস মালিকদের সংগঠন বিজিইএম সরকারের সাথে বুঝাপড়া না করে শ্রমিকদের ডেকে এনে কেন বিপর্যয়ের মুখে ঠেলে দেয়া হলো। শ্রমিকদের চাকুরিচুত্যের ভয় দেখানো হয়েছে, ফলে ৭০-৮০ কি.িম হেটে জীবনের ঝুকি নিয়ে ঢাকায় আনা হলো তার জবাব দিতে হবে।
আজ রোববার সকালে ইসলামী আন্দোলন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আওতাধীন কদমতলী থানার জুরাইন চেয়ারম্যান বাড়ী এলাকা, সবুজবাগ থানার অসহায় ও কর্মহীন মানুষের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী নগদ অর্থ বিতরণকালে প্রিন্সিপাল মাদানী এসব কথা বলেন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন নগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, আলহাজ্ব আনোয়ার হোসেন, মু. হুমায়ুন কবির, মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা নূরউন নাবী শেখ, কদমতলী থানা সভাপতি মাওলানা মাছউদুর রহমান, মু. আজিজুল হক সবুজবাগ থানা সভাপতি মাওলানা দেলেয়ার হোসেন। আলহাজ্ব জাফর মাহমুদ বেপারীর সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারী নজরুল ইসলামের পরিচালায় এ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।
এদিকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীমের নির্দেশে সারাদেশে ত্রাণ তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। স্ব স্ব জেলা শাখা এ ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। সংগঠনের কেন্দ্র তা মনিটরিং করছে।

adadad