Sunday , December 15 2019
Home / বাংলা বিভাগ / খবর / সাভারে ছাদ বাগানের গাছকাটা নারী আটক
ad
সাভারে ছাদ বাগানের গাছকাটা নারী আটক
A woman who cut down plants of a roof garden was taken into custody by police on Wednesday. UNB

সাভারে ছাদ বাগানের গাছকাটা নারী আটক

সাভার, ২৩ অক্টোবর – সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সাভারের এক নারীর গাছকাটার ভিডিও ব্যাপকভাবে সমালোচিত হওয়ার ২৪ ঘণ্টা না পেরুতেই অভিযুক্ত খালেদা আক্তার লাকী নামী ওই নারীকে আটক করেছে পুলিশ।বুধবার সকালে সাভারের সিআরপি রোডের আটতলা ওই বাড়ির ছাদ পরিদর্শনে যান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সাভার সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ।
গাছ কাটতে বাঁধা দেয়া তরুণী লালমাটিয়া কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সুমাইয়া হাবিব জানান, চার ইউনিটের বাড়ির ষষ্ঠ তলার দুটি ফ্ল্যাট ক্রয় করেন তার বাবা আহসান হাবিব। অপর একটি ফ্ল্যাটের মালিক ওই নারী খালেদা আক্তার লাকী। গাছপালার শখ থেকেই তিনি (সুমাইয়া) তার বাড়ির ছাদে ছোট্ট পরিসরে ছাদবাগান করেন। সেখানে বিভিন্ন ফুলের পাশাপাশি শাক সবজির চারাও রোপন করেন তিনি। যা নিয়মিত পরিচর্যা করতেন অনার্স পড়ুয়া ছাত্রী সুমাইয়া ও তার মা।
‘কিন্তু ওই নারী, তার স্বামী অ্যাডভোকেট সেলিম আল দীন ও ছেলের কাছে ছাদে আামাদের বাগান করার বিষয়টি ভালো লাগেনি। ইতোপূর্বেও তারা এ নিয়ে আমাকে ও আমার পরিবারকে গালমন্দ করেছিল। মঙ্গলবার বিকালে আমি ছাদে প্রতিদিনের মতো গাছ পরিচর্যার কাজে আসলে ওই নারীকে দা হাতে গাছগুলো কাটতে দেখতে পাই। এতে বাধা দিতে গেলে সে ও তার ছেলেসহ বহিরাগত ৭-৮ জন আমাকে গালমন্দ করে। আমি আকুতি করে প্রতিবাদ করলে ওই নারী আমাকে দা দিয়ে মেরে ফেলতে তেড়ে আসেন,’ বলেন তিনি।
এঘটনার পর সকালে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ওই নারীকে আটক করে নিয়ে যান।
সুমাইয়ার বাবা আহসান হাবিব জানান, তার প্রতিবেশী নারী ও তার পরিবারের সদস্যরা মঙ্গলবার যে ভাবে গাছ কাটছিল তা অত্যন্ত দুঃখজনক। এতে বাধা দেয়ায় তাদের অনেক গালমন্দ করেন অভিযুক্তরা। তবে সকালে প্রশাসনের এমন ভূমিকায় তারা সন্তুষ্ট। এধরনের ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় সে জন্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান তিনি। তবে ভিডিওতে দা হাতে গাছ কাটতে থাকা ওই নারী খালেদা আক্তার লাকী ঘটনার কথা স্বীকার করে নিজে অনুতপ্ত হয়েছেন বলে দাবি করেন।
লাকি বলেন, যারা তার গাছ কাটার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়েছে তারা তাকে ছাদ থেকে ফেলে দেয়ার হুমকি দিয়েছিল বলেই তিনি ক্ষোভের বসে এঘটনা ঘটিয়েছেন।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সাভার সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, ফেসবুকে গাছ কাটার ভিডিও সামাজিক ও গণমাধ্যমে ভাইরাল হলে সাধারণ মানুষ তীব্র প্রতিবাদ জানায়। এছাড়াও গাছ কাটতে বাধা দেয়া ওই তরুণীর বাবা আহসান হাবিব এঘটনায় থানায় একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত নারী খালেদা আক্তার অপরাধ স্বীকার করেছেন।
সাভার থানার ওসি এএফএম সায়েদ জানান, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও বৃক্ষ নিধন আইনে অভিযুক্ত নারীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। – ইউএনবি

সাভার, ২৩ অক্টোবর – সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সাভারের এক নারীর গাছকাটার ভিডিও ব্যাপকভাবে সমালোচিত হওয়ার ২৪ ঘণ্টা না পেরুতেই অভিযুক্ত খালেদা আক্তার লাকী নামী ওই নারীকে আটক করেছে পুলিশ।
বুধবার সকালে সাভারের সিআরপি রোডের আটতলা ওই বাড়ির ছাদ পরিদর্শনে যান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সাভার সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ।
গাছ কাটতে বাঁধা দেয়া তরুণী লালমাটিয়া কলেজের অনার্স দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সুমাইয়া হাবিব জানান, চার ইউনিটের বাড়ির ষষ্ঠ তলার দুটি ফ্ল্যাট ক্রয় করেন তার বাবা আহসান হাবিব। অপর একটি ফ্ল্যাটের মালিক ওই নারী খালেদা আক্তার লাকী। গাছপালার শখ থেকেই তিনি (সুমাইয়া) তার বাড়ির ছাদে ছোট্ট পরিসরে ছাদবাগান করেন। সেখানে বিভিন্ন ফুলের পাশাপাশি শাক সবজির চারাও রোপন করেন তিনি। যা নিয়মিত পরিচর্যা করতেন অনার্স পড়ুয়া ছাত্রী সুমাইয়া ও তার মা।
‘কিন্তু ওই নারী, তার স্বামী অ্যাডভোকেট সেলিম আল দীন ও ছেলের কাছে ছাদে আামাদের বাগান করার বিষয়টি ভালো লাগেনি। ইতোপূর্বেও তারা এ নিয়ে আমাকে ও আমার পরিবারকে গালমন্দ করেছিল। মঙ্গলবার বিকালে আমি ছাদে প্রতিদিনের মতো গাছ পরিচর্যার কাজে আসলে ওই নারীকে দা হাতে গাছগুলো কাটতে দেখতে পাই। এতে বাধা দিতে গেলে সে ও তার ছেলেসহ বহিরাগত ৭-৮ জন আমাকে গালমন্দ করে। আমি আকুতি করে প্রতিবাদ করলে ওই নারী আমাকে দা দিয়ে মেরে ফেলতে তেড়ে আসেন,’ বলেন তিনি।
এঘটনার পর সকালে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ওই নারীকে আটক করে নিয়ে যান।
সুমাইয়ার বাবা আহসান হাবিব জানান, তার প্রতিবেশী নারী ও তার পরিবারের সদস্যরা মঙ্গলবার যে ভাবে গাছ কাটছিল তা অত্যন্ত দুঃখজনক। এতে বাধা দেয়ায় তাদের অনেক গালমন্দ করেন অভিযুক্তরা। তবে সকালে প্রশাসনের এমন ভূমিকায় তারা সন্তুষ্ট। এধরনের ঘটনার যাতে পুনরাবৃত্তি না হয় সে জন্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান তিনি। তবে ভিডিওতে দা হাতে গাছ কাটতে থাকা ওই নারী খালেদা আক্তার লাকী ঘটনার কথা স্বীকার করে নিজে অনুতপ্ত হয়েছেন বলে দাবি করেন।
লাকি বলেন, যারা তার গাছ কাটার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়েছে তারা তাকে ছাদ থেকে ফেলে দেয়ার হুমকি দিয়েছিল বলেই তিনি ক্ষোভের বসে এঘটনা ঘটিয়েছেন।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সাভার সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ জানান, ফেসবুকে গাছ কাটার ভিডিও সামাজিক ও গণমাধ্যমে ভাইরাল হলে সাধারণ মানুষ তীব্র প্রতিবাদ জানায়। এছাড়াও গাছ কাটতে বাধা দেয়া ওই তরুণীর বাবা আহসান হাবিব এঘটনায় থানায় একটি অভিযোগও দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত নারী খালেদা আক্তার অপরাধ স্বীকার করেছেন।
সাভার থানার ওসি এএফএম সায়েদ জানান, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও বৃক্ষ নিধন আইনে অভিযুক্ত নারীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। – ইউএনবি
“সম্মিলিত ছাদ বাগান পরিবার”
“সম্মিলিত ছাদ বাগান পরিবার” এর পক্ষ থেকে সবাইকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। গতকাল মোটামুটি সব গ্রুপেই আমরা একটা দু:খজনক ভিডিও দেখেছি যেখানে একটি পরিবারের প্রয়োজনীয় ও সখের বাগান কে খুব বাজে ভাবে ধ্বংস করতে দেখেছি। গতকাল রাত থেকেই এব্যাপারে “সম্মিলিত ছাদ বাগান পরিবার” এর পক্ষ থেকে যথাযথ প্রশাসন ও বিভিন্ন মিডিয়ার সাথে যোগাযোগ করে ব্যাবস্থা নেয়া হয়।
যার প্রেক্ষিতে আজ সকালে আক্রমণকারী সেই মহিলা কে পুলিশ গ্রেফতার করে। আজ বিকেলে “সম্মিলিত ছাদ বাগান পরিবার” এর পক্ষ থেকে আমরা সাভার আসি ভিকটিমের পরিবারের সাথে দেখা করতে। কথা হয় ভিকটিম সুমাইয়া হাবিব, তার বাবা ও তার মা এর সাথে। পুরো বিষয়টাই আমরা শুনি। বিষয়টা দু:খজনক। “সম্মিলিত ছাদ বাগান পরিবার” এর কাছে ভিকটিম পরিবারের দুটো চাওয়া ছিল –
১: উক্ত ভবনে দুটো ফ্ল্যাটের মালিক হিসেবে ছাদে তাদের যতটুকু অংশ, ততোটুকু অংশে যেন তাদের কে বাগান করতে দেয়া হয় যেন তারা একটু হলেও সবুজকে নিয়ে থাকতে পারেন।
২: ভিকটিমের বাবা বলেন – তার কলেজ পড়ুয়া মেয়ে ও ক্লাশ সেভেনে পড়া ছেলে প্রতিদিন স্কুলে যাতায়াত করে। কিন্তু তারা বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বিধায় সামনে তাদের জীবনের নিরাপত্তা ও স্বাভাবিক জীবন যাপনের নিশ্চয়তা চান।
সুমাইয়া হাবীবের পরিবার কে আশ্বস্ত করা হয় “সম্মিলিত ছাদ বাগান পরিবার” তাদের পাশে আছে এবং বাগান বিষয়ক, সামাজিক ও আইনগত বিষয়ে সাধ্যমতো সাহায্য করবার চেষ্টা করবে। “সম্মিলিত ছাদ বাগান পরিবার” এর পক্ষ থেকে এসময় সুমাইয়া হাবিব এর পরিবার কে বিভিন্ন গাছও উপহার দেয়া হয়। ধন্যবাদ সব্বাইকে। জীবন সুন্দর ও মঙ্গলময় হোক সবার।

ক্ষতিগ্রস্ত বাগানীদের কিছু গাছের চারা উপহার দেয়া হয়। ছবি – মোতালেব মাসরেকী।

adadad