News update
  • 9 killed in 7 months at unmanned level crossings in Feni     |     
  • Donald Trump says FBI carried out raid on Mar-a-Lago property     |     
  • UN Chief for Access to Ukraine Nuke Plant After New Attack     |     
  • The names and faces of the 15 children killed in Gaza     |     
  • Russia using Zaporizhzhia nuclear power plant as army base - Ukraine     |     

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের নেতারা আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আলোচনায় বসবেন

গ্রীণওয়াচ ডেস্ক error 2022-06-29, 7:49am

img_20220629_075113-05c379056318103c0e9479ef6a5852bb1656467504.png




সোমবার হোয়াইট হাইজের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সালিভান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং “আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আলোচনায় বসবেন” তবে তা জি-৭ সম্মেলনের পরপরই হবে না।

এদিকে আগামী মাসে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে জি-২০ মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের সময়ে যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের প্রধান কূটনীতিকরা এক পার্শ্ব-বৈঠকে মিলিত হবার পরিকল্পনা করছেন বলে কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে।

নেটো দেশগুলোর নেতারা এ সপ্তাহের শেষের দিকে মাদ্রিদে বৈঠক করবেন। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা এবং বিশ্লেষকরা বলছেন, গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের (পিআরসি) সঙ্গে আলোচনার বিষয়টি আলোচ্যসূচির উপরের দিকে রয়েছে। কারণ নেটো এই বছর তার নতুন কৌশলগত ধারণাকে প্রত্যয়িত করবে বলে আশা করা হচ্ছে যা ১৯৪৯ সালের উত্তর আটলান্টিক চুক্তির পরে সংস্থাটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কার্যকরী দলিল। সর্বশেষ কৌশলগত ধারণাটি ২০১০ সালে অনুমোদিত হয়েছিল।

পরের মাসে জি-২০ মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন এবং চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অয়াং ইয়ের মধ্যে নির্ধারিত বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে। এ দিকে রাশিয়া ইউক্রেনে আক্রমণ নিয়ে তর্জন গর্জন করে চলেছে।

রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করার পর যুক্তরাষ্ট্রের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা চীনের কথিত ‘নিরপেক্ষতা’ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

চীনের শুল্ক তথ্য অনুযায়ী মে মাসে চীন রাশিয়া থেকে প্রায় ৮৪ লক্ষ ২০ হাজার টন অপরিশোধিত তেল আমদানি করেছে। এ পরিমাণ এক বছর আগের তুলনায় ৫৫ শতাংশ বেশি। যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলো মস্কোর জ্বালানি রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত রাখার কারণে রাশিয়া সৌদি আরবকে ছাড়িয়ে চীনের শীর্ষ তেল সরবরাহকারী হয়ে উঠেছে।

সোমবার হোয়াইট হাইজের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেক সালিভান বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং “আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে আলোচনায় বসবেন” তবে তা জি-৭ সম্মেলনের পরপরই হবে না।

এদিকে আগামী মাসে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে জি-২০ মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের সময়ে যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের প্রধান কূটনীতিকরা এক পার্শ্ব-বৈঠকে মিলিত হবার পরিকল্পনা করছেন বলে কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে।

নেটো দেশগুলোর নেতারা এ সপ্তাহের শেষের দিকে মাদ্রিদে বৈঠক করবেন। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা এবং বিশ্লেষকরা বলছেন, গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের (পিআরসি) সঙ্গে আলোচনার বিষয়টি আলোচ্যসূচির উপরের দিকে রয়েছে। কারণ নেটো এই বছর তার নতুন কৌশলগত ধারণাকে প্রত্যয়িত করবে বলে আশা করা হচ্ছে যা ১৯৪৯ সালের উত্তর আটলান্টিক চুক্তির পরে সংস্থাটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কার্যকরী দলিল। সর্বশেষ কৌশলগত ধারণাটি ২০১০ সালে অনুমোদিত হয়েছিল।

পরের মাসে জি-২০ মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের সময়ে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন এবং চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অয়াং ইয়ের মধ্যে নির্ধারিত বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে। এ দিকে রাশিয়া ইউক্রেনে আক্রমণ নিয়ে তর্জন গর্জন করে চলেছে।

রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করার পর যুক্তরাষ্ট্রের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা চীনের কথিত ‘নিরপেক্ষতা’ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

চীনের শুল্ক তথ্য অনুযায়ী মে মাসে চীন রাশিয়া থেকে প্রায় ৮৪ লক্ষ ২০ হাজার টন অপরিশোধিত তেল আমদানি করেছে। এ পরিমাণ এক বছর আগের তুলনায় ৫৫ শতাংশ বেশি। যুক্তরাষ্ট্র এবং অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলো মস্কোর জ্বালানি রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত রাখার কারণে রাশিয়া সৌদি আরবকে ছাড়িয়ে চীনের শীর্ষ তেল সরবরাহকারী হয়ে উঠেছে। তথ্য সূত্র ভয়েস অফ আমেরিকা বাংলা।